হাটাহাটি করলেই হবে ইনকাম । SweatCoin ব্যবহার ও আয় করার উপায় 

SweatCoin বর্তমান সময়ে ট্রেন্ডি ক্রিপ্ট্রো কয়েন যা মাইনিং প্রক্রিয়া হলো হাটাহাটি করা। জী আপনি সারাদিনে স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় যেভাবে হেটে থাকেন সেভাবেই হাটার মাধ্যমে করতে পারবেন ইনকাম। কিভাবে করবেন সেই প্রক্রিয়া সংক্রান্তই উক্ত আর্টিকেল। 

হাটতে যেহেতু হবেই, 

তো হেটে চলাকেই কাজে লাগানো যাক

আপনি দৈনিক কতক্ষন হাটাহাটি করেন? কত মিনিট বা কত স্টেপ হাটেন? জিজ্ঞাস করছি কারন আপনার হাটাহাটির পরিমাণের উপর নির্ভর করবে আপনি কত ইনকাম করতে পারছেন। আপনি যত বেশি হাটবেন, তত বেশি অর্থ যোগ হবে আপনার ওয়ালেটে। শুনে ভালো লাগছে? তবে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক কিভাবে এবং কোথা থেকে হেটে হেটে আয় করতে পারবেন। 

বলছিলাম সোয়াট কয়েন (SweatCoin) এর কথা। ২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করা কয়েন্টি সম্প্রতি লিস্টেড করা হয়েছে, চলছে মাইনিং। ইতিমধ্যে ১০০ মিলিয়নের বেশি ইউজার রেজিস্ট্রেশন করে নিয়েছে এবং হেটে হেটে আয় করে নিচ্ছে SweatCoin । এবার হেটে হেটে কয়েন আয়ের ব্যাপারটা বোঝানো যাক। 

সোয়াট কয়েন হলো টপ ১ এর হেলথ এবং ফিটনেস অ্যাপ।  যাদের ট্যাগ লাইন দেয়া হয়েছে It Pay to Walk যার মানে আপনাকে পে করা হচ্ছে হাটার জন্য। আপনি দৈনিক স্বাভাবিক যেভাবে হাটাহাটি ঠিক একই কাজই কন্টিনিউ করবেন শুধু একটা কাজ বেশি করতে হবে তা হলো আপনার ফোনে একটা অ্যাপ ইন্সটল রাখতে হবে। এখন কি সেই অ্যাপ এবং কিভাবে সেটাপ করবেন সেই সম্পর্কে নিম্মে বিস্তারিত বিবৃতি প্রদান করা হলো। 

হেটে হেটে ইনকাম । Start earning with Sweatcoin 

একাউন্ট তৈরি করা 

এবার জানানো আপনার কোন কোন পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন সোয়াট কয়েন বা Sweatcoin অর্জন করার জন্য। সম্পূর্ণ পদ্ধতি নিম্মে স্টেপ বাই স্টেপ দেয়া হচ্ছে: 

  • Sweatcoin official app ইন্সটল করে নিন লিংকে ক্লিক করে (Use Chrome Browser)
  • অতঃপর, নতুন ড্যাশবোর্ডে Accept Invited অপশনে ক্লিক করুন। 
  • আপনাকে রিডাইরেক্ট করে অ্যাপটিতে নিয়ে যাওয়া হবে সেখান থেকে ইন্সটল করুন।
  • আপনার এন্ড্রোয়েট ফোন হোক বা আইফোন উভয়ের জন্য অ্যাপ রয়েছে
  • ইন্সটল প্রসেস শেষ হলে সেটি ওপেন করুন।

এই ছিলো অ্যাপ ইন্সটল সংক্রান্ত প্রসেস গুলো। এবার বলা যাক অ্যাপটি ইন্সটল হয়ে গেলে কি কি করতে হবে সেই সম্পর্কে। প্রথমেই বলে রাখি এটা প্লে স্ট্রোরে বর্তমানে ১ নাম্বারে অবস্থান করছে হেলথ এন্ড ফিটনেস ক্যাটাগরিতে। এটা ভাবার কোনো কারন নেই যে এটা Fake বা আপনার কাছ থেকে ইনফরমেশন নিয়ে পালিয়ে যাবে। 

ইতিমধ্যে বেশ কিছু এক্সচেইঞ্জ ওয়ালেটে সোয়াট কয়েন্ট লিস্টেড হয়ে গেছে। যদিও এখনই Exchance ফিচার্সটি চালু হয়নি তবে শিগ্রই হয়ে যাবে। এখন আপনি মাইনিং করে রাখতে পারেন। আর মাইনিং করার উপায় তো জানেনই, হাটাহাটি করা। এবার অ্যাপটি ওপেন করে যা করতে হবে তা হলো: 

  • গুগল একাউন্ট থেকে সাইন আপ করুন
  • আপনার ইউজার নেম সহ ব্যাসিক তথ্য গুলো সাবমিট হয়ে যাবে
  • এই পর্যায়ে আপনাকে বেশ কিছু পারমিশন যেমন: গুগল ফিট, ব্যাটারি অপটিমাইসেশন অফ, এবং কিছু Allow বাটন শো করবে যা-কিনা ক্লিক করে করে যেতে হবে যতক্ষন না অব্দি Got it লিখাটি আসছে। Got it ক্লিক করার মাধ্যমেই ব্যাসিক কাজ শেষ। এবার মেইন ড্যাশবোর্ড চলে আসবে। 
  • আপনার ফোনে যদি ব্যাটারি অপটিমাইসেশন অফ করার অপশনটি না আসে তবে ড্যাশবোর্ডে সেটি হাইলাইট হবে যেখানে ক্লিক করে ফোনে সেটিংস থেকে সোয়াটকয়েন এর জন্য ব্যাটারি অপটিমাইসেশন রেস্টিকশন অফ করে দিতে হবে। 

একাউন্ট তৈরি করার সকল কাজ শেষ। এবার আপনি হাটা শুরু করলেই সেটা কাউন্ট হতে থাকবে। 

Sweatcoin Wallet 

আপনি হেটে হেটে যত Sweatcoin ইনকাম করবেন সেটা রাখার জন্য, ট্রান্সফার করার জন্য, এক্সচেঞ্জ সহ যাবতীয় বাই সেল সংক্রান্ত সকল কাজ করার জন্য আরেকটি ওয়ালেটের প্রয়োজন হবে যা আপনি প্লে স্ট্রোরে এবং Sweatcoin অ্যাপ এর মধ্যেই পেয়ে যাবেন। 

নিম্মের সার্চ বক্সে Sweatcoin Wallet Play Store লিখে সার্চ করুন। এবং সেখান থেকে প্রথমে থাকা ওয়েবসাইট থেকে নিজ ফোনে ইন্সটল করে নিন। 

এবার আপনি যখনই Sweatcoin মূল অ্যাপ থেকে ব্যালেন্সের ওয়ালেটে দেখতে যাবেন অথবা Sweatcoin Wallet অ্যাপে ঢুকতে যাবেন তখন login with Sweatcoin অপশন আসবে। সেটিতে ক্লিক করে প্রথমবার লগিন এক্সেস সেট করে নিতে হবে। ব্যাস আপনার যাবতীয় কাজ শেষ। 

sweatcoin price in Bangladesh

প্রশ্ন করতে পারেন How many sweatcoins is 1000 steps? বর্তমানে প্রতি ১০০০ স্টেপের বিপরীতে ১ Sweatcoin দেয়া হচ্ছে। তাদের লক্ষ্য ২০২৫ সালের মধ্যে সেই সংখ্যা দাঁড়াবে ৭.৩ স্টেপে এবং ২০২৮ সালে ১ সোয়েট কয়েনের জন্য হাটতে হবে ১৮.৬ হাজার স্টেপ। এবং তারা জানিয়েছে ধিরে ধিরে মাইনিং কঠিন থেকে কঠিন হবে। এবং একটি সোয়াট কয়েন্টের সমান ১ US ডলার হবে (sweatcoin to usd)

বর্তমানে এক সোয়াট কয়েনে মূল্য বিভিন্ন এক্সচেঞ্জ ওয়ালেট অনুযায়ী প্রায় ৪-৫ সেন্টের সমমূল্য বা বলা যেতে পারে ৫ টাকার আশেপাশে। যেহেতু এখন মাইনিং চলছে এবং এখন অব্দি কেবল ১০% কয়েন এভেইলেবল করা হয়েছে তাই দীর্ঘ কালীন সময়ের জন্য ক্রিপ্টোকারেন্সি হোল্ড করা বা মাইনিং করার ইচ্ছা থাকলে এটা বেশ ভালো সুফল দিবে আগামীতে। 

Deal with Swaetcoin and personal opinion

আমার ব্যক্তিগত অপিনিয়ন চাওয়া হলে আমি বলবো এটা তাৎক্ষনিক ট্রেডিং করার জন্য মোটেও উপযোগী নয়, এমনকি তাৎক্ষনিক ট্রেডিং করার জন্য খুব কমই ক্রিপ্টো কারেন্সি রয়েছে যার। তাছাড়া তাৎক্ষনিক ট্রেডিং করতে খুব দক্ষতা ও সচেতনার প্রয়োজন হয়, যেখানে অনেক বেশি আয় ও অনেক বেশি লস যুক্ত থাকে। তবে যদি দীর্ঘ কালীন ধরে ভালো কোনো কয়েন হোল্ড করে রাখতে পারেন তবে সেটা অবশ্যই পজিটিভ কিছু প্রদান করবে। 

প্রথমবার হিসেবে ব্যাসিক তথ্য গুলো প্রদান করা হয়ে গেছে। পরবর্তীতে Sweatcoin সংক্রান্ত আপডেট, সমস্যার সমাধান, আয়ের উপায় থেকে শুরু করে সকল তথ্য পেতে অনুসরণ করুন এই ব্লগের Make Money ক্যাটাগরি অথবা Cryptocurrency ট্যাগটি। Happy Mining.. 

Leave a Comment