বরিশাল বিভাগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা কলেজের তালিকা | বরিশালের সেরা কলেজ

আপনি যদি জানতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন বরিশাল বিভাগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা কলেজগুলোর তালিকা সম্পর্কে অথবা বরিশালের সেরা কলেজ কোনগুলো সে সম্পর্কে তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য এখানে আপনার কাঙ্ক্ষিত বিষয়ে উপরে ভিত্তি করে তালিকা ও তার বিবরণী প্রস্তুত করা হয়েছে।

বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে শিক্ষাগত দিক থেকে বরিশাল অনেকটাই এগিয়ে। বিভক্তির আগে যখন ভারত বর্ষ বাংলার সাথে যুক্ত ছিল ঠিক তখন থেকেই পড়াশোনার দিক থেকে বরিশালের নামটা ছিল ব্যাপক। এমনকি বর্তমানে বিষয়টি লক্ষণীয়। 

শিক্ষা ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের খুব বড় একটি অবদান রয়েছে। এবং বরিশালের ক্ষেত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর অবদান কেমন এবং কোন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বরিশাল বিভাগের সেরা সে সম্পর্কে বলবো। 

হ্যালো, আমি সেলিম মাহমুদ, এবং আপনি আছেন আমার Salim Speaking নামক ব্লগে। যেখানে প্রতিনিয়ত ছোট বড় বিষয়ে সমস্যার সমাধান নিয়ে আলোচনা করি এবং সহজে পাঠকের কাছে উপস্থাপন করি। 

সেই সুবাদে এবারের বিষয়বস্তু হচ্ছে “বরিশালের সেরা কলেজ – যা পাশাপাশি বরিশাল বিভাগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা কলেজের তালিকা এর মধ্যেও রয়েছে” যদিও আপনি এই বিষয়ে জানার বিষয়ে আগ্রহ হয়ে থাকেন তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই। 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে নতুন করে বলার মতো কিছু নেই তবে ইন্ট্রো হিসেবে বলে রাখি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এমন একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পুরো বাংলাদেশে বিস্তৃত। কলেজে পর্যায়ে অনার্সের প্রোগ্রাম চালু করার মাধ্যমে শিক্ষাদান করে যাচ্ছে বাংলাদেশের লাখ লাখ শিক্ষার্থীকে। 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কলেজের পারফরমেন্সের উপর ভিত্তি করে তৈরিকৃত রেংকিং এর আলোকে বরিশালের সেরা কলেজ গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত বলা হবে। 

এখানে উল্লেখিত কলেজগুলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত কলেজ। সেই হিসেবে এসব কলেজে বিভিন্ন প্রোগ্রাম শেষ করার মাধ্যমে যে সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে তা হবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে। 

তা ছাড়া বাকি সব ইনফরমেশন কলেজ ভিত্তিক লেখনীতে হওয়া যাবে। সাথে বরিশালের সেরা কলেজ গুলোর নাম ও সে কলেজের সাথে জড়িত বিষয়গুলো তুলে ধরছি। 

সরকারি বি এম কলেজ, বরিশাল 

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলির মধ্যে সরকারি বি এম কলেজ অন্যতম। প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অন ১৮৮৯ সালে অশ্বিনী কুমার দত্ত প্রতিষ্ঠা করে। সেসময় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ছিল প্রতিষ্ঠানটি এবং বেশ নামডাক ছিল বটে। 

এবং বর্তমানে বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয় তাদের নিজস্ব রেংকিং অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে। সরকারি বিএম কলেজে বর্তমানে 22 টি বিষয়ে স্নাতক এবং 21 টি বিষয়ে স্নাতকোত্তর এর ব্যবস্থা আছে। 

মোট 64 একর এর প্রতিষ্ঠান একটি বাণিজ্য ভবন, দুইটি কলাভবন, চারটি বিজ্ঞান ভবন, তিনটি সুবিশাল মাঠ এবং একটি অডিটোরিয়াম রয়েছে। পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীদের থাকার জন্য রয়েছে হলের ব্যবস্থাও। সরকারি বি এম কলেজে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ২৭,০০০ এর মত। 

লোকেশন : বি এম কলেজ রোড, নথুল্লাবাদ বাস স্ট্যান্ড, বরিশাল। 

সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ, বরিশাল 

বরিশালে অবস্থিত আরো একটি সেরা কলেজের নাম বললে সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ এর কথা উঠে আসবে। ১৯৬৬ সালে প্রতিষ্ঠিত আবার এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে স্নাতক স্নাতকোত্তর এবং ইন্টারমিডিয়েটের পাঠদান দেয়া হয়। 

22 এখন জুড়ে বিস্তৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় 7 হাজার। এখানে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে 22 টি বিষয়ে শিক্ষাদান করা হয় এবং তার পাশাপাশি স্নাতক বা সমমান পর্যায়ে 12 টি বিষয়ে পাঠদান করা হয়। 

লোকেশন : চৌমাথা, ঢাকা-বরিশাল সড়ক সংলগ্ন, বরিশাল। তাছাড়া আরও বিস্তারিত তথ্য পেতে ভিজিট করুন তাদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট

সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজ, পিরোজপুর

বরিশাল বিভাগ তবে পিরোজপুর জেলায় রয়েছে আরও একটি সরকারি কলেজ যাকে অবশ্যই বরিশালের সেরা কলেজ বলা যেতে পারে কারণ পারফরম্যান্সের দিক থেকে এই কলেজটি ও কোন অংশে পিছিয়ে নয়। 

কলেজটি স্থাপিত হয় 1957 সালে। পরবর্তী পরবর্তীতে 1961 সালে বিএ পাস কোর্স চালু হয় এবং 1993 সালে স্নাতক এর পাঠদান শুরু করা হয়। মাধ্যমিক পর্যায় থেকে শুরু করে ডিগ্রী স্নাতক বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান দেয়া হয়। 

লোকেশন : পিরোজপুর সদর, পিরোজপুর, বরিশাল, বাংলাদেশ। ভর্তি অথবা অন্যান্য অর্থের জন্য ভিজিট করুন তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে

ভোলা সরকারি কলেজ, ভোলা

এবার বলব বরিশাল বিভাগের আরো একটি নামকরা সরকারি কলেজ সম্পর্কে যেটা অবস্থিত ভোলা জেলায়। হ্যাঁ বলছি ভোলা সরকারি কলেজ এর কথা। ভোলা দ্বীপপুঞ্জে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির অবদান ব্যাপক।

টোটাল 15 একর জুড়ে 1962 সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি স্থাপিত হয়। বর্তমান শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় 6324 এর মতন। হে প্রভু জ্ঞান দাও ” নীতিবাক্যের মধ্য দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে উচ্চমাধ্যমিক এবং স্নাতক বা সম্মান পর্যায়ের পাঠদান দিয়ে থাকে। মোট 19 টি বিষয় সম্মান বা স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষা দেওয়া হয়ে থাকে সরকারি কোন কলেজে। 

একটি পরিপূর্ণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হওয়ার জন্য যা যা প্রয়োজন তার প্রতিটা জিনিসের রয়েছে ভোলা সরকারি কলেজে। শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে থাকা খাওয়ার জন্য রয়েছে এই দুইটি ছাত্রাবাস, রয়েছে লাইব্রেরী, সুবিশাল মাঠ সহ আরো অনেক কিছু।

লোকেশন : যুগিরঘোল, ভোলা- চরফ্যশন সড়ক সংলগ্ন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে আরো জানতে বা ভর্তি কার্যক্রমের জন্য সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে

পরিশেষে এই ছিল বরিশালের সেরা কলেজ গুলোর মধ্যে সেরা কয়েকটি। এখানে মোট ৪ টি কলেজের কথা বলা হয়েছে। তবে তাই বলে এই চারটি কলেজ ব্যতীত অন্যান্য কলেজগুলোর ভালো নয় টা বোঝানো হয়নি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেংকিং এর অনুযায়ী কলেজ পারফরমেন্সের দিক থেকে এই চারটি কলেজ এগিয়ে রয়েছে। 

 

Leave a Comment